ফেসবুক পিক্সেল ব্যবহার করেছেন কি?

আমাদের দেশে অনেকেই ফেসবুকে মার্কেটিং করেন। কিন্তু তারা পিক্সেল সম্পর্কে জানেন না বা কখনো ব্যবহার করেন নি। এটা শুধু ফেসবুকের ক্ষেত্রেই না, গুগল এনালিটিকস টুলের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়। যদি আপনার ওয়েবসাইট না থাকে তবে পিক্সেল ব্যবহার করারও অপশন নেই।

ফেসবুক পিক্সেল (Facebook Pixel) কি?

ফেসবুক পিক্সেল হল কতিপয় কোড যা ওয়েবসাইটের হেডার সেকশনে দিয়ে দিতে হয়। এটি আপনার ওয়েবসাইটের বিভিন্ন তথ্য এনালাইসিস করার জন্য প্রদান করে থাকে। যেমন, কতজন কাস্টমার ভিজিট করল, কোন প্রডাক্ট পেইজ ভিজিট করল, কোথা থেকে কাস্টমার বের হয়ে গেল ইত্যাদি বিষয়। সেক্ষেত্রে কাস্টমারের আচার-আচরন (behavior) সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন। তারপর তাদেরকে রি-টার্গেট করে আপনি এড দিতে পারবেন।

উদাহরনস্বরূপ ধরুন, কতিপয় কাস্টমার আপনার একটি প্রডাক্টের পেইজ ব্রাউজ করল। কিন্তু তারা এটা কিনল না। তাদের আগ্রহ আছে বলেই তারা কিন্তু হাজার হাজার প্রডাক্টের মধ্যে ঐ প্রডাক্টটির পেইজ ব্রাউজ করেছে। কিন্তু হয়তো কোন কারনে কিনেনি। পরবর্তীতে আপনি যদি তাদেরকে কোন একটা অফার দেন, তাহলে এদের একটা অংশ হয়তো ঐ প্রডাক্টটা কিনবে। আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন।

কিভাবে ব্যবহার করবেন?

প্রথম ধাপঃ পিক্সেল তৈরী করাঃ

প্রথমে ইভেন্ট ম্যানেজারে যান। তারপর Connect Data Sources এ যান এবং Web সিলেক্ট করুন। Get Started ক্লিক করুন। Facebook Pixel সিলেক্ট করুন এবং Connect ক্লিক করুন। পিক্সেল কিভাবে কাজ করে তা এখান থেকে পড়ে নিন এবং Continue ক্লিক করুন। তারপর Pixel Name দিন। এখন আপনার website URL দিয়ে পরবর্তী সেটআপ অপশন চেক করুন। এবার Continue ক্লিক করুন।

দ্বিতীয় ধাপঃ ওয়েবসাইটে পিক্সেল এড করাঃ

প্রথমে ইভেন্ট ম্যানেজারে যান। এখান থেকে আপনি যে পিক্সেল সেটআপ করতে চান তা সিলেক্ট করুন। এরপর Continue Pixel Setup ক্লিক করুন। এখন Install code manually. সিলেক্ট করুন। এবার পিক্সেলের কোড কপি করুন। এবার আপনার ওয়েবসাইটের হেডার অপশনে তা পেস্ট করে সাইট আপডেট করে দিন।

এডস ম্যানেজারে পিক্সেল ক্রিয়েট করার পর আপনার পরবর্তী এডে আপনি পিক্সেল ব্যবহার করার জন্য প্রস্তুত হলেন।

বিশেষ সাবধানতাঃ ওয়েবসাইট ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে নূন্যতম ধারনা না থাকলে নিজে নিজে এ কাজ করতে যাবেন না। এতে আপনার সাইটের ক্ষতি হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনি ওয়েব ডেভেলপারের সাহায্য নিন।

সবাই ঘরে থাকুন, সুস্থ্য থাকুন।

Leave a Comment