আপনার পেইজের সিকিউরিটি

ফেসবুকে আপনার একটি পেইজ আছে। এটি খুবই জনপ্রিয় এবং প্রচুর ফলোয়ার আছে। একদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখলেন আপনি আপনার পেইজে ডুকতে পারছেন না। কারন আপনার একাউন্ট হ্যাক হয়ে গেছে।

প্রতিদিনই এমন প্রচুর কাহিনী আমি শুনতে পাই। ফেসবুক পেইজকে নিরাপদ রাখতে আপনার নিজস্ব একাউন্ট নিরাপদ রাখতে হবে। কারন আপনি সাধারনত নিজের একাউন্ট দিয়েই পেইজ পরিচালনা করেন। নিজের একাউন্ট নিরাপদ রাখতে নিচের বিষয়গুলো মেনে চলুনঃ

১) নিজের অরিজিনাল একাউন্ট থেকে পেইজ পরিচালনা করুন। তাহলে একাউন্টে কোন সমস্যা হলেও আপনার পরিচয়পত্র বা পাসর্পোট দিয়ে নিজের আইডি উদ্ধার করতে পারবেন।

২) ই-মেইল আইডি ও মোবাইল নাম্বার ভেরিফাইড করে রাখুন। সেই সাথে ই-মেইল ও মোবাইল নাম্বার এক্টিভ রাখুন।

৩) এডমিন প্যানেলে প্রয়োজনে একাধিক বিশ্বস্ত ব্যক্তিকে এড করুন। তবে অদক্ষ কাউকে এড না করাই ভাল। এডমিনদের সকলের আইডি অবশ্যই সুরক্ষিত থাকতে হবে।

৪) লগইন এপ্রুভাল, Two Factor Authintacation, Code Generator এই তিনটি অপশন চালু রাখলে আপনার একাউন্ট অবশ্যই নিরাপদ হবে। সেক্ষেত্রে হ্যাকারের পক্ষে হ্যাক করা খুবই মুশকিল। ফেসবুকের সেটিংসে যাওয়ার পর ”সিকিউরিটি এন্ড লগইন অপশনে’ আপনি এই অপশনগুলো পাবেন।

আপনি যে যে ডিভাইস নিয়মিত ব্যবহার করেন, সেগুলো রিকগনাইজড করে রাখলে সাধারনত হ্যাক হয় না। উপরের অপশনগুলো যদি চালু থাকে, আর কেউ যদি অন্য ডিভাইস থেকে আপনার একাউন্ট হ্যাক করতে চায় তখন আপনার মোবাইলে একটি কোড চলে যাবে, অথবা আপনার এন্ড্রয়েড এপসে আপনার অনুমতি চাইবে। আপনি কোড না দেয়া পর্যন্ত বা এপস থেকে এপ্রুভাল না দেয়া পর্যন্ত কেউ আপনার একাউন্টে ডুকতে পারবে না।

৫) Get alerts about unrecognized logins চালু রাখুন। ফলে অন্য যে কোন ডিভাইস থেকে যে কেউ আপনার আইডিতে প্রবেশ করার সাথে সাথে আপনার মোবাইল ও ই-মেইলে মেসেজ চলে আসবে।

৬) ফেসবুক আইডি দিয়ে আমরা প্রায়ই বিভিন্ন এপসে লগ ইন করি। থার্ড পার্টি এই এপসগুলো প্রায়ই আপনার তথ্য চুরি করে। ফলে ভাল করে না জেনে ফেসবুক আইডি দিয়ে কোনো এপসে লগ‌ইন করবেন না।

৭) তিনজন বন্ধুকে (সর্বোচ্ছ ৫ জনকে দেয়া যায়) আপনি এড করে রাখতে পারেন। কোন কারনে আপনি আইডিতে ডুকতে না পারলে সেই তিনজন আপনাকে বিশ্বাষযোগ্য URL বা কোড পাঠাবে। সেগুলো দিয়ে আপনি আপনার আইডি ফেরত পাবেন।

৮) Authorized Logins অপশনে প্রবেশ করে আপনি আপনার লগইন করা ডিভাইসগুলো দেখতে পারবেন। কোন ডিভাইস যদি আপনার সন্দেহজনক মনে হয়, তবে তা সেখান থেকে মুছে দিন।

Leave a Comment